কক্সবাজার, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪

বিএনপির গণমিছিল শুরু

সরকারের পদত্যাগ ও খালেদা জিয়ার মুক্তির একদফা দাবিতে ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির গণমিছিল শুরু হয়েছে। শনিবার (৯ সেপ্টেম্বর) বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে রামপুরা বেটার লাইফ হাসপাতালের সামনে থেকে এই গণমিছিল শুরু হয়।

মিছিলটি আবুল হোটেল- মালিবাগ রেলগেট- মৌচাক- মালিবাগ মোড়- শান্তিনগর ও কাকরাইল মোড় হয়ে নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে গিয়ে জড়ো হবে।

গণমিছিলপূর্ব সংক্ষিপ্ত সমাবেশে ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির আহবায়ক আমান উল্লাহ আমান বলেন, এই গণমিছিল থেকে সরকারকে বার্তা দিতে চাই, অবিলম্বে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে বিদেশে উন্নত চিকিৎসার সুযোগ দিতে হবে। অন্যথায় অনাকাঙ্ক্ষিত কোন ঘটনা ঘটলে এর দায় দায়িত্ব সরকারকেই নিতে হবে।

তিনি আরও বলেন, আমরা লক্ষ লক্ষ মানুষের রক্ত দিয়ে স্বাধীনতা অর্জন করেছি। প্রয়োজনে আরেকবার রাজপথে রক্ত দিয়ে গণতন্ত্র ও নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নিবার্চনের দাবি আদায় করা হবে। আমান সকলকে একদফা দাবি আদায়ে রাজপথে থাকার জন্য আহবান জানান।

উত্তরের গণমিছিলে বিএনপি নেতা আহমেদ আজম খান, অধ্যাপক ডা. জাহিদ হোসেন, আব্দুল আউয়াল মিন্টু, জয়নুল আবদিন ফারুক, আতাউর রহমান ঢালী, শামা ওবায়েদ, আমিনুল হক প্রমুখ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত রয়েছেন।

অন্যদিকে কমলাপুরে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির গণমিছিলপূর্ব সমাবেশ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। দুপুর আড়াইটার দিকে এই সমাবেশ শুরু হয়েছে। দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে দলের ভাইস চেয়ারম্যান বকরতউল্লাহ বুলু, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, চেয়ারপারসের বিশেষ সহকারি শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, যুবদলের সভাপতি সুলতান সালাউদ্দিন টুকু প্রমুখ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত রয়েছেন।

সমাবেশ শেষে দক্ষিণের গণমিছিলটি কমলাপুর স্টেশন উত্তর এলাকা থেকে শুরু হয়ে আরামবাগ, ফকিরাপুল মোড় হয়ে নয়াপল্টনস্থ বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এসে জড়ো হবে।

দুটি মিছিল নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের সামনে পৌঁছানোর পর সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য দেবেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এছাড়াও দলের সিনিয়র নেতারা বক্তব্য রাখবেন।

পাঠকের মতামত: