কক্সবাজার, শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২

বিশ্বের প্রথম ‘জীবন্ত রোবট’ বানালেন বিজ্ঞানীরা

বিশ্বের প্রথম জীবন্ত রোবট তৈরি করলেন বিজ্ঞানীরা। জীবন্ত এ রোবটগুলো হাঁটতে পারে, সাঁতার কাটতে পারে। বাড়তি খাবার সরবরাহ ছাড়াই টানা কয়েক সপ্তাহ টিকে থাকতে পারে। ব্যাঙের স্টেম সেল ব্যবহার করে তৈরি করা এ রোবটের নাম দেয়া হয়েছে জেনোবট।

অনেক দিন ধরেই মানবিক গুণাবলীসম্পন্ন রোবট বানানোর চেষ্টা করছেন বিজ্ঞানীরা। তবে এমন রোবট বানানো এখন পর্যন্ত অসম্ভব হলেও এবার বিশ্বের প্রথম ‘জীবন্ত’ রোবট তৈরি করার দাবি করেছেন মার্কিন বিজ্ঞানীরা। এর নাম তারা দিয়েছেন জেনোবটস।

যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব ভারমন্ট ও টাফটস ইউনিভার্সিটির একদল গবেষক সুপার কম্পিউটারের মাধ্যমে হাতে করা নকশার মাধ্যমে গবেষণাগারে পৃথিবীর প্রথম জীবন্ত রোবট তৈরি করেছেন। আফ্রিকান এক প্রজাতির ব্যাঙের স্টেম সেল দিয়ে রোবটটি তৈরি করা হয়। এই রোবটের প্রস্থ এক মিলিমিটারেরও কম। গবেষকরা জানিয়েছেন, জেনোবট কোনো গতানুগতিক রোবট নয়, আবার কোনো সাধারণ প্রাণীও নয়। এরা হলো জীবন্ত ‘যন্ত্র’।

এছাড়া গঠনের দিক থেকেও জেনোবটগুলো প্রচলিত রোবটের মতো নয়। এদের কোনো চকচকে গিয়ার বা রোবটিক বাহু নেই। দেখতে গোলাপি রঙের চলন্ত ক্ষুদ্র মাংসপিণ্ডের মতো। এই রোবট এমন কিছু কাজ করতে সক্ষম যা স্টিল বা প্লাস্টিকের রোবট দিয়ে সম্ভব নয়।

জেনোবটস তৈরিতে ব্যাঙের ভ্রূণ থেকে স্টেম সেল আলাদা করে প্রজননের জন্য উপযুক্ত পরিবেশ দেওয়া হয়। কিন্তু কোনো জিনগত পরিবর্তন আনা হয় না। এটি নিজে থেকেই কাজ করতে পারে। যেহেতু এটি জেনেটিক্যালি অপরিবর্তিত ব্যাঙ কোষ থেকে তৈরি, তাই তিন হাজার কোষ ব্যবহার করে তৈরি গোলক আকৃতির এ রোবট বংশবৃদ্ধি করতে পারে। তবে এটা ঘটে নির্দিষ্ট কিছু শর্ত মেনে।

তবে এই প্রযুক্তি এখনো প্রাথমিক অবস্থায় রয়েছে। ভবিষ্যতে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ও আণবিক জীববিজ্ঞানের নানা পদ্ধতি কাজে লাগিয়ে একে নানা কাজে লাগানো যাবে বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা।

পাঠকের মতামত: