কক্সবাজার, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪

লাখ লাখ ফেসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য ‘ফাঁস’, মেটার সতর্কতা

ফেসবুকের মূল কোম্পানি মেটা বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) তার গ্রাহকদের উদ্বেগের এক খবর দিয়েছে। সতর্কতা জারি করে সংস্থাটি জানিয়েছে, তাদের প্রায় ১০ লাখ ব্যবহারকারীর ‘লগইন তথ্য’ বেহাত হয়ে গেছে বলে মনে করা হচ্ছে।

মেটার অফিসিয়াল বিবৃতি অনুসারে, ‘ক্ষতিকর অ্যাপস’-এর কারণে ব্যবহারকারীদের তথ্য ফাঁস হয়ে থাকতে পারে। ভিডিও গেমস এবং অন্যান্য কিছু অ্যাপের ‘ছদ্মবেশে’ এসব অ্যাপ্লিকেশন গুগল প্লে স্টোর এবং অ্যাপল স্টোরে তালিকাভুক্ত করা হয় এবং ‘প্রতারণার’ মাধ্যমে মানুষকে সেগুলো ডাউনলোড করার জন্য প্রলুব্ধ করা হয়। ডাউনলোড করার পর অ্যাপগুলো ব্যবহার করার জন্য ফেসবুকে লগইন করলেই মোবাইল ফোনের অ্যাক্সেস বা নিয়ন্ত্রণ চলে যেতে পারে হ্যাকারের হাতে।

মেটার গবেষকরা বলছেন, বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ক্ষতিকর অ্যাপগুলো ব্যবহারকারীকে তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লগইন করতে বলে এবং এই প্রক্রিয়ায় ব্যবহারকারীর নাম এবং পাসওয়ার্ডের মতো তথ্য চুরি করে।

এ ধরনের অ্যাপের সংখ্যা প্রায় ৪০০ বলে অনুমান করা হচ্ছে। ফেসবুকের তথ্য বেহাত হয়েছে এমন ব্যবহারকারীদের সুনির্দিষ্ট সংখ্যা নির্ধারণ করার চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন মেটার মুখপাত্র গ্যাবি কার্টিস।

মেটার থ্রেট ডিসরাপশন ডিরেক্টর ডেভিড আগ্রানোভিচ কোম্পানির অফিসিয়াল ব্লগে লিখেছেন, এটি অত্যন্ত প্রতিকূল স্থান। তবে আমাদের সহকর্মীরা ক্ষতিকর সফটওয়্যার শনাক্ত এবং তা অপসারণে কাজ করছেন। যদিও কিছু অ্যাপ শনাক্তকরণ প্রক্রিয়া এড়িয়ে বৈধ অ্যাপ্লিকেশন হিসেবে গুগল প্লে এবং অ্যাপল স্টোরে জায়গা করে নিচ্ছে।

মেটা ইতোমধ্যেই অনলাইন স্টোর থেকে এ ধরনের অ্যাপ ডি-লিস্ট বা সরিয়ে ফেলতে অ্যাপল এবং গুগল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। পাশাপাশি মেটা তাদের এ সংক্রান্ত অনুসন্ধানের সম্পূর্ণ প্রতিবেদনও সরবরাহ করেছে।

এছাড়াও ‘সম্ভাব্য ক্ষতিগ্রস্ত’ ব্যবহারকারীদের সঙ্গে যোগাযোগ করে তথ্য কীভাবে সুরক্ষিত রাখতে হয়, সে বিষয়ে তাদের নির্দেশনাও দিয়েছে মেটা।

পাঠকের মতামত: