কক্সবাজার, শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

লামা উপজেলা পরিষদের মাসিক সাধারণ সভা

বান্দরবানের লামা উপজেলা পরিষদের “মাসিক সাধারণ সভা” অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টা থেকে সভার কার্যক্রম শুরু হয়।

সভায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মোস্তফা জামালের সভাপতিত্বে সরকারের বিভিন্ন বিভাগীয় প্রধানরা অগ্রগতি প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন। জনপ্রতিনিধিরা তুলে ধরেন তাদের বিভিন্ন সমস্যা ও সম্ভাবনার দিকগুলো।

এসয়ম উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি গজালিয়া ইউপি চেয়ারম্যান বাথোয়াইচিং মার্মা বলেন, সম্প্রতি বিভিন্ন গ্রামে হামলাকারী হাতির পালটি বন্য হাতি নয়। ব্যক্তি মালিকানা হাতিগুলো স্থানীয় মানুষের ক্ষেতের ফসল, জানমালসহ বাড়ি ঘরের অব্যাহত ক্ষতি করে চলছে। উপজেলার বিভিন্ন পয়েন্টে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের নীতিহীন প্রতিযোগিতা বন্ধ ও পোষা হাতির মালিকদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনার প্রস্তাব আনা হয়।

জনভোগান্তির প্রসঙ্গক্রমে তিনি ক্ষোভের সাথে জানান, প্রকৌশল বিভাগের অবহেলায় কিংবা অদক্ষতার কারণে সরকারের অর্থায়নে সদ্য নির্মিত বিভিন্ন রাস্তা-ঘাট নির্মানের অল্পদিনের মধ্যে ভেঙ্গে যাচ্ছে।

লামা থানার ওসি মিজানুর রহমান বলেন, আগের যে কোন সময়ের চেয়ে বর্তমানে আইন শৃঙ্খলার অবস্থা ভাল। বগাইছড়ি হারগাজা এলাকায় ভূমি সংক্রান্ত বিরোধ অনেকটা জটিল। নিরসন না করলে সেখানে আইন শৃঙ্খলার অবনতি ঘটতে পারে।

সভায় বলা হয় সাধারন জনগনকে বিভিন্ন পন্থায় ধোকা দেয়ার প্রবনতা লক্ষ করা যাচ্ছে। মগ লিভারেশন গ্রুপের নাম ভাঙ্গিয়ে চাঁদাবাজী এবং প্রান্তিক জনগোষ্টিকে সরকারের বিভিন্ন সুযোগ করে দেয়ার নামেও চলছে প্রতারণা।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ রেজা রশিদ বলেন, তথ্যপ্রযুক্তির বিকাশ সাধন করে, নতুন ভোটারদের সুযোগ দিতে হবে। টিআর কাবিখার কাজ দ্রুত সমাপ্ত করার অনুরোধ জানান।

উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মোস্তফা জামাল বলেন, মাসিক সভায় সকল সরকারি দপ্তরের প্রধানদ্বয় উপস্থিত থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করা আবিশ্যিক।

এছাড়া হাসপাতালে সেবা প্রার্থীদের সুবিধার্থে হাসপাতাল সংলগ্নে ফার্মেসী স্থাপনের জন্য উদ্যাগ গ্রহন করা হয়েছে। সবাইকে করোনা প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাস্ক ব্যাবহার করা প্রয়োজন বলে অনুরোধ জানানো হয়।

পাঠকের মতামত: